শিক্ষাক্ষেত্রে একবিংশ শতাব্দীর দক্ষতা বলতে কী বোঝেন


প্রশ্ন : শিক্ষাক্ষেত্রে একবিংশ শতাব্দীর দক্ষতা বলতে কী বোঝেন ? শিক্ষাক্ষেত্রে একবিংশ শতাব্দীর দক্ষতার প্রয়োগ লিখুন ।

উত্তর: অর্থনীতির বিশ্বায়ন এবং আন্তর্জাতিকরণ-এর পাশাপাশি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির দ্রুত উন্নতির ফলে আমাদের জীবনযাপন , কার্যধারা এবং শিখনের ক্ষেত্রে নিরস্তর পরিবর্তন হচ্ছে । একদিকে যেমন—গতানুগতিক পদ্ধতিতে উৎপাদনের চাহিদা হ্রাস পাচ্ছে অন্যদিকে তেমনি কর্মচারীদের কাজের ধারার মধ্যে পরিবর্তনের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে । সেই কারণে বর্তমান যুবকদের বৃত্তির জন্য যে ধরনের যোগ্যতা অর্জন করতে হচ্ছে তার অস্তিত্ব কয়েক বছর পূর্বেও ছিল না । এই অবস্থার সঙ্গে সাযুজ্য রেখে চলতে গিয়ে শিখনের জগতেও ব্যাপক পরিবর্তন দেখা দিয়েছে যার জন্য নতুন দক্ষতা অর্জনের প্রয়োজন । এই দক্ষতাগুলি হল সমস্যাসমাধান , বিশ্লেষণাত্মক চিন্তন , ডিজিটাল লিটারেসি এবং সৃজনশীলতামূলক পরিবেশ । এই দক্ষতাগুলির মধ্যে কয়েকটি দক্ষতা (সমস্যাসমাধান , বিশ্লেষণাত্মক চিন্তন) সম্পর্কে বিংশ শতাব্দী থেকে ব্যাপক আলোচনা এবং গবেষণা হয়েছে ।

ইউরোপীয়ান দেশগুলিতে ডিজিটাল লিটারেসির ধারণার মধ্যে অন্তর্ভুক্ত হল- প্রযুক্তি সাক্ষরতা (Technological [ Literacy)

প্রযুক্তি সাক্ষরতা বলতে বোঝায় প্রযুক্তির সঙ্গে সমাজের মিথস্ক্রিয়া এবং সমাজের সমস্যা সমাধানে ও সমাজের লক্ষ্য অর্জনে প্রযুক্তির চাহিল সম্পর্কে সচেতন হওয়া । তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সাক্ষরতা হল – তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিকে সঠিকভাবে ব্যবহার করার দক্ষতা । তথ্য সাক্ষরতা বলতে বোঝায় সঠিকভাবে এবং উৎকর্ষতার সঙ্গে তথ্য সংগ্রহ করা মূল্যায়ন করা এবং সেইগুলিকে সঠিক ও সৃজনশীলভাবে ব্যবহার করা ।

শিক্ষাক্ষেত্রে একবিংশ শতাব্দীর দক্ষতা প্রয়োগ : শিক্ষার ক্ষেত্রে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সংক্রান্ত দ্বিতীয় সমীক্ষার (Second Information Technology in Education Stu dents বা SITES) দেখা গেছে যে , 1998 খ্রিস্টাব্দ থেকে 2006 খ্রিস্টাব্দে বিদ্যালয়গুলির অধ্যক্ষগণের দেয় তথ্য অনুযায়ী একবিংশ শতাব্দীর দক্ষতা বিদ্যালয়ের কর্মসূচিতে যথেষ্ট বৃদ্ধি পেয়েছে । এই বৃদ্ধি কেবলমাত্র উন্নত পাশ্চাত্য দেশগুলিতেই সীমাবদ্ধ নয় । এশিয়ার দেশগুলি বিশেষ করে হংকং , জাপান , তাইওয়ান সিঙ্গাপুর , থাইল্যান্ড প্রভৃতি দেশেও ঘটেছে । ভারতবর্ষও এর ব্যতিক্রম নয় , যদিও কেবলমাত্র নির্দিষ্ট কয়েকটি বিদ্যালয়ে দেখা গিয়েছে । তবে বিপরীতটাও দেখা গেছে । ইউরোপের কয়েকটি দেশে (ডেনমার্ক এবং নরওয়ে) হ্রাস পেয়েছে ।
সংক্ষেপে বলা যায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশগুলির শিক্ষাব্যবস্থায় একবিংশ শতাব্দীর দক্ষতাগুলি কী পরিমাণে ব্যবহৃত হয়েছে তা বিশ্লেষণ করলে দেখা যায় যে , উন্নত দেশগুলিতে এর ব্যবহার যথেষ্ট বৃদ্ধি পেয়েছে । উন্নতিশীল দেশগুলিতে এ সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি পেয়েছে এবং ধীর গতিতে হলেও বৃদ্ধি পেয়েছে । তবে অনুন্নত ও দরিদ্র দেশগুলি শিক্ষাব্যবস্থায় এ সম্পর্কে যথেষ্ট সচেতন নয় এবং এর প্রতিফলন দেখা যায় না ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page