হর্ষবর্ধন

💠 হর্ষবর্ধন :

◼️ প্রাচীনকালে উত্তর ভারতের শেষ উল্লেখযােগ্য সম্রাট হলেন হর্ষবর্ধন ( 606-647 খ্রিষ্টাব্দ ) । হর্ষবর্ধনের রাজত্বের বিষয়ে তথ্য পাওয়া যায় তাঁর সভাকবি বাণভট্ট ( যিনি কাদম্বরী ও পার্বতী পরিণয় – ও লিখেছিলেন ) রচিত ‘ হর্ষচরিত ‘ এবং তাঁর রাজত্বকালে ( 630 খ্রিষ্টাব্দ ) আগত বিখ্যাত চৈনিক পরিব্রাজক হিউয়েন সাং – এর বিবরণ থেকে ।

◼️ পরবর্তী গুপ্তদের অধীনে একটি ক্ষুদ্র সামন্ত বংশ ছিল থানেশ্বরের পুষ্যভুতিরা । এই বংশের প্রথম উল্লেখযােগ্য রাজা হর্ষের পিতা প্রভাকরবর্ধন । তাঁর মৃত্যুর পর থানেশ্বরের রাজা হন রাজ্যবর্ধন , হর্ষের জ্যেষ্ঠ ভ্রাতা । কিন্তু বাংলার শশাঙ্কের সঙ্গে মিলিতভাবে মালবরাজ দেবগুপ্ত কনৌজের মৌখরি শাসক গ্রহবর্মনকে হত্যা করেন । গ্রহবর্মন ছিলেন হর্ষের ভগ্নী রাজ্যশ্রীর স্বামী । রাজ্যশ্রীও দেবগুপ্তের হাতে বন্দী হন । পালটা অভিযানে রাজ্যবর্ধনের মৃত্যু হলে হর্ষবর্ধন থানেশ্বর ও কনৌজের রাজা হন , রাজ্যশ্রীকে উদ্ধার করেন এবং রাজধানী কনৌজে সরিয়ে নিয়ে যান ।



◼️ কামরূপের ভাস্করবর্মার সঙ্গে মৈত্রী করেও হর্ষ শশাঙ্ককে কোনও দিনও পরাজিত করতে পারেননি , কিন্তু শশাঙ্কের মৃত্যুর পর তার রাজ্যের কিছু অংশ হর্ষ দখল করেন । হর্ষ বল্লভী জয় করেন , কিন্তু আইহােল প্রশস্তি অনুসারে , দ্বিতীয় পুলকেশীর হাতে পরাস্ত হন।

◼️ হর্ষ প্রায় সমগ্র উত্তর ভারতে নিজের কর্তৃত্ব স্থাপন করেছিলেন । যদিও বেশ কয়েকবারই তিনি যুদ্ধে পরাজয়ের সম্মুখীন হয়েছিলেন । তাঁর আমলেই কেন্দ্রীভূত শাসনব্যবস্থা ক্রমশ দুর্বল হতে এবং সামন্ততান্ত্রিক প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে দেখা যায় । অর্থনীতির ক্ষেত্রেও অবনতি ঘটেছিল — বাণিজ্য প্রায় বন্ধ হয়ে যায় এবং স্থানীয় ও সীমাবদ্ধ সামন্ততান্ত্রিক অর্থনৈতিক ব্যবস্থা গড়ে ওঠে ।

◼️ হর্ষ ‘ শিলাদিত্য ’ ও ‘ সকলউত্তরপথনাথ ’ উপাধি গ্রহণ করেন ।

◼️ প্রথম জীবনে শৈব হর্ষ পরে বৌদ্ধধর্মের বিশেষ পৃষ্ঠপােষক হয়ে ওঠেন । তিনি কনৌজে বিরাট সম্মেলনের আয়ােজন করতেন এবং প্রচুর দানধ্যান করতেন । নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয় তাঁর দানে বিশেষ সমৃদ্ধ হয়েছিল । কিন্তু হিন্দুধর্মের জনপ্রিয়তা , বিশেষ করে শৈবমতের জনপ্রিয়তা বজায় ছিল ।

Related posts:

বিশ্বখ্যাত বিজ্ঞানীদের জীবন কথা
পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান গুরুত্বপূর্ণ পদাধিকারী : 2024
চন্দ্রযান-3 : চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে অবতরণকারী প্রথম দেশ ভারত
GENERAL STUDIES : TEST-2
GENERAL STUDIES : 1
কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স: 8ই সেপ্টেম্বর
'জ্ঞানচক্ষু' গল্পের নামকরণের সার্থকতা বিচার করো।
তপনের জীবনে তার ছোটো মাসির অবদান আলোচনা করো।
সমান্তরাল আলোকরশ্মিগুচ্ছ বলতে কী বোঝ ?
আলোকরশ্মিগুচ্ছ বলতে কী বোঝায় ? এটি কয়প্রকার ও কী কী ?
একটি সাদা কাগজকে কীভাবে তুমি অস্বচ্ছ অথবা ঈষৎ স্বচ্ছ মাধ্যমে পরিণত করবে ?
ঈষৎ স্বচ্ছ মাধ্যম কাকে বলে ? উদাহরণ দাও ।
অস্বচ্ছ মাধ্যম কাকে বলে ? উদাহরণ দাও ।
স্বচ্ছ মাধ্যম কাকে বলে ? উদাহরণ দাও ।
অপ্রভ বস্তুও কি আলোর উৎস হিসেবে কাজ করতে পারে?
বিন্দু আলোক - উৎস কীভাবে পাওয়া যেতে পারে ?
বিন্দু আলোক - উৎস ও বিস্তৃত আলোক - উৎস কী ?
অপ্রভ বস্তু কাকে বলে ? উদাহরণ দাও ।
স্বপ্নভ বস্তু কাকে বলে ? উদাহরণ দাও ।
দিনেরবেলা আমরা ঘরের ভিতর সবকিছু দেখতে পাই , কিন্তু রাত্রিবেলা আলোর অনুপস্থিতিতে কোনো জিনিসই দেখতে পা...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page